উৎসব

২৬ শে মার্চ কি দিবস এবং স্বাধীনতা দিবস কি [ক্লিক করে বিস্তারিত দেখুন]

26 শে মার্চকে বলা হয় স্বাধীনতা দিবস। আপনারা অনেকেই জাতীয় প্রশ্ন গুগলে সার্চ করে থাকেন। তাই আজকে আমার এই পোস্টের মাধ্যমে মহান স্বাধীনতা দিবস রচনা সামগ্রী নিয়ে হাজির হয়েছি।

আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এবং স্বাধীনতা দিবস রচনা সামগ্রিক এবং 26 শে মার্চ কাকে বলে উত্তর জেনে নিন। যেহেতু আমরা বাঙালি বিশেষ করে বাংলাদেশি। তাই 26 শে মার্চের ইতিহাস সম্পর্কে জানা আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তাই এই পোষ্টের মাধ্যমে স্বাধীনতা দিবস এবং স্বাধীনতা দিবস এর ইতিহাস সম্বন্ধে আলোচনা করতে যাচ্ছি। আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মন দিয়ে পড়ে নিলে আশা করি আপনারা সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

26 শে মার্চ কি দিবস হিসেবে পালন করা হয়। সেই তথ্য জানতে আগ্রহী। এ পোস্টের মাধ্যমে 26 শে মার্চের ইতিহাস সম্বন্ধে আলোচনা করব। 26 শে মার্চকে স্বাধীনতা দিবস কারণ এই ছাব্বিশে মার্চ বাংলাদেশকে শত্রুমুক্ত করার জন্য যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

২৬ শে মার্চ এর বক্তব্য

২৬ শে মার্চ এর তাৎপর্য

২৬ শে মার্চ এর ছবি

26 মার্চ 1971 সালে পৃথিবীর মানচিত্রে একটি দেশের নামের অন্তর্ভুক্তি ঘটে। বাংলাদেশ স্বাধীনতা দিবসের দিনটিকে ঘিরে রচিত হয়েছে এই দিনের নবী সূর্যোদয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের নাম উন্মোচন হয়।

স্বাধীনতা দিবসের আনন্দ মুহূর্তের মধ্যে প্রথমে যে কথা মনে পড়ে। তাহলে এদেশের অসংখ্য দেশ প্রেমিক শহীদের আত্মদান। তাই আপনাদের অনুরোধ থাকবে 26 শে মার্চ এর ইতিহাস সম্বন্ধে জেনে নিন।

এবং ইতিহাস গুলো নতুন প্রজন্মের নিকট ছড়িয়ে দিন। বাংলাদেশ কিভাবে স্বাধীনতা লাভ করে সেই তথ্য এবং সংক্ষিপ্ত ইতিহাস আবার অনেকে জানতে চাচ্ছেন। এই পোস্টের মাধ্যমে বাংলাদেশে কিভাবে স্বাধীনতা লাভ করে সেই প্রক্রিয়া

২৬ মার্চ ১৯৭১ এর ইতিহাস

২৬ শে মার্চ এর রচনা

২৬ শে মার্চ এর কবিতা

এবং ইতিহাস সম্বন্ধে জানাবো। ভারত বাংলাদেশ যুদ্ধ করে বাংলাদেশ স্বাধীন করে পূর্ব পাকিস্তান ছাব্বিশে মার্চ 1971 সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়ে গিয়েছিল। এরপর দীর্ঘ নয় মাস বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশকে মুক্ত করে।

এরপর আমরা স্বাধীন এক ভূখণ্ড পাই। যার নাম বাংলাদেশ। তাহলে বন্ধুরা, এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস রচনার করলাম। আপনারা যদি মন দিয়ে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত নিবন্ধন করুন পড়েন।

তাহলে আপনাকে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলাদেশ অভ্যুদয়। আমাদের মুক্তির সনদ। যাকে বলা হয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা।

২৬ শে মার্চ ২০২২ কত তম স্বাধীনতা দিবস

২৬ শে মার্চ কেন স্বাধীনতা দিবস

২৬ শে মার্চ কি দিবস

শেখ মুজিবকে পাকিস্তানের শত্রু ও ভারতের দালাল আখ্যা দিয়ে পাকিস্তান সরকার উনাকে ২৫ শে মার্চ রাতে গ্রেফতার করে পশ্চিম পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই রাতে পাকিস্তান বাংলাদেশি মানুষদের উপর ইতিহাসের নির্মম গনহত্যা চালায়।

কি শিক্ষক, কি ছাত্র, কি নারী, কি শিশু, কেউ রেহাই পায় নি সেই রাতে। এক রাতেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় রক্তের বন্যা বইয়ে দেয় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

২৬ শে মার্চ এর ব্যানার ডিজাইন

২৬ মার্চ কে স্বাধীনতা দিবস ঘোষনা করা হয় কখন

সে কি বিভৎষতা!বাংলার হিন্দু, মুসলমান মা-বোনদের পাকিস্তানি হানাদারদের থেকে ও বাংলাদেশের ভিতরে রাজাকার কারা মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে ছিলো। তাদের থেকে ধর্ষন হওয়া থেকে রক্ষা করতে,

তখন বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধা জীবনের মায়া ত্যাগ করে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে। সেই সাথে ভারতের সীমান্তের লোকজনও তখন বাংলাদেশি মুক্তিযোদ্ধা সেজে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়।এভাবে আমরা আমরা স্বাধীনতাটাকে অর্জন করতে পেরেছি।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button