স্বাস্থ্য

ডুমুর ফলের উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম [এখানে ক্লিক করে দেখুন]

ডুমুর এক ধরনের নরম ও মিষ্টি জাতীয় ফল। এটির অঞ্জীর নামেও বেশ পরিচিত। ডুমুরের প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, ভিটামিন ব,  শর্কর, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম ও আয়রন রয়েছে যা মানব দেহের জন্য উপকারী।

আজকে আমরা ডুমুর ফলের উপকারিতা, গুনাগু, খাওয়ার নিয়ম ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা কর। ডুমুরের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য এই ফল খুবই উপযোগ।

যারা ডায়েট করেন তাদের অবশ্যই ডুমুর খাওয়া উচিত, ডুমুর ফল শরীরের চর্বি নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে সাথে শরীরে কোন খাদ্য উপাদান এর অভাব হয় না। ডুমুর ফলের যে সকল উপাদান রয়েছে সেগুলো ওজন কমাতে সাহায্য করে,

পাশাপাশি এতে অনেক ধরনের পুষ্টি উপাদান থাকে। যা আমাদের দেহের ভেঙ্গে যাওয়া রোধ কর।  মহিলাদের স্তন ক্যান্সার বর্তমানে পৃথিবীর সর্বাধিক আক্রান্ত রোগ গুলির মধ্যে একট।

মহিলাদের মেনোপেজ পরবর্তী এই ক্যান্সার থেকে মুক্তি লাভের সাহায্য করে। গবেষণায় জানা যায় 34 শতাংশ মহিলাদের শুধু খাদ্য তালিকায় আঁশ যুক্ত ডুমুর ফল থাকার কারণে স্তন ক্যান্সার হয়নি।

ডায়াবেটিস বা বহুমূত্র রোগের ওষুধ ডুমুর ফল। হাড়ের সঠিক বৃদ্ধি ও পুষ্টি বজায় রাখার জন্য ডুমুর ফল খাওয়া  জরুরী। ডুমুর ফলের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম যা হাড়ের সুষ্ঠ গঠনে সহায়তা করে।

ডুমুর পাতা ও ফল উভয়ই ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং ডুমুরের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ম্যাংঙ্গানিজ যা বার্ধক্য জনিত রোগ থেকে রক্ষা করে। ডুমুর ফল নিয়মিত খাওয়ার ফলে পেটের অসুখ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

পাশাপাশি এতে থাকা রাফেজ কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দিতে সহায়ক। ডুমুর ফল সেবনের মাধ্যমে পাইলসের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। শুকনো ডুমুর রক্তের ট্রাইগ্লিসারিডকে কমায়।

ডুমুরের প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে, শুকনো ডুমুর আমাদের শরীরে আয়রনের পরিমাণ কে স্বাভাবিক রাখে। শুকনো ডুমুরে বিটা ক্যারোটিন এবং ভিটামিন বি থাকে এছাড়া শুকনো ডুমুরের মধ্যে রয়েছে ফাইবার পেকটিন ইত্যাদি।

ঠান্ডা চিকিৎসায় দুধের সাথে শুকনো ডুমুর ফল সিদ্ধ একটি দুর্দান্ত কাশির ঔষধ। শুকনো ডুমুর ফলের মধ্যে থাকা মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট মস্তিষ্কে ইতিবাচকভাবে প্রভাবিত করে এবং জমে থাকা চাপ থেকে মুক্তি দেয়।

শুকনো ডুমুর নিয়মিত খেলে হার্টের কার্যক্রমে একটি উপকারী প্রভাব ফেলে। ডুমুরের রয়েছে পটাশিয়াম এর মধ্যে থাকা এনজাইম এগুলো দ্রুত শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ সরিয়ে ফেলতে সহায়তা করে।

শুকনো ডুমুর ফল কোষ্ঠকাঠিন্য রোগের জন্য বেশ উপকারী ঔষধ। মেয়েদের অধিক ঋতুস্রাব এর ক্ষেত্রে দুধ ও চিনি সঙ্গে ডুমুরের রস মিশিয়ে খেলে  ঋতুস্রাব বন্ধ হয়ে যায়।

ডুমুরের পাতায় আছে অ্যান্টি ডায়াবেটিক উপাদান যা ডায়াবেটিস রোগীকে ইনসুলিন গ্রহণের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। ডুমুরের পাতা ব্যবহার এর মাধ্যমে হৃদপিন্ডের ক্ষতিকারক চর্বিগুলো অনুপাত কম হতে সাহায্য করে।

স্যাতসেতে ডুমুরের পাতার রস পান করে শরীরে চিনি নিয়ন্ত্রণে আনা যায়। স্যাতসেতে  ডুমুরের পাতা ব্যবহারে ত্বকের আলসার এবং ব্রংকাইটিস থেকে মুক্তি লাভ করা যায়।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button