মোবাইল ব্যাংকিং

[See] পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায়

আপনার কোনো বন্ধু অথবা আত্মীয় স্বজন যদি পাকিস্তান থাকে অথবা পড়াশোনা পড়াশোনা সংক্রান্ত কাজের জন্য পাকিস্তান গিয়ে থাকে। তাহলে কোন কারণে যদি বাংলাদেশে কোন রেমিটেন্স পাঠাতে চাই। সেটা আপনারা কিভাবে করবেন।

আপনারা এ সংক্রান্ত তথ্য জানার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এই তথ্য আপনার আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জানাবো। আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এবং দেখে নিন পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায়।

বৈধ কোন উপায় নেই তবে যা আছে সেটা হচ্ছে আপনার যদি ডুয়েল কারেন্সি কোন ডেবিট অথবা ক্রেডিট কার্ড থাকে সেই কার্ড দিয়ে আপনি রেমিটলি, ট্রানস্ফেরোয়াইজ বা পেওনিয়ার দিয়ে পাঠাতে পারেন।

পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠানোর উপায় আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব । সৌদি আরবসহ পৃথিবীর সব দেশ থেকেই প্রবাসী বাংলাদেশিরা যেকোনো মানিট্রান্সফার দোকান থেকে অথবা মোবাইল অ্যাপ থেকে বৈধ ভাবে টাকা পাঠাতে পারেন ।

 প্রিয়জনের বিকাশ একাউন্টে অথবা যেকোনো ব্যাংকিং এ টাকা পৌঁছে যাবে মুহূর্তে সাথে পাবেন 2 শতাংশ সরকারি বোনাস।  সৌদি আরব সহ পৃথিবীর যেকোন দেশে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা খুব সহজে এবং সুবিধাজনক পদ্ধতিতে অনুমোদিত

এবং তালিকাভুক্ত ফরেইন ব্যাংক, মানি ট্রান্সফার অর্গানাইজেশন (এমটিও) এবং মানি এক্সচেইঞ্জ হাউজগুলোর মাধ্যমে বাংলাদেশে প্রিয়জনের বিকাশ একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবেন।বিকাশ অনুমোদিত এবং পার্টনার ব্যাংক ব্রাঞ্চ, মানি এক্সচেইঞ্জ

বা এমটিও এজেন্ট-এর কাছে যান।আপনি যার কাছে টাকা পাঠাবেন তার বিকাশ একাউন্ট নাম্বার এবং তিনি বিকাশ একাউন্ট খোলার সময় যে নাম ব্যবহার করেছিলেন তার পুরো নাম দিতে হবে।পরবর্তী নির্দেশনা অনুসরণ করে আপনি টাকা পাঠাতে পারবেন

হ্যালো বন্ধুরা,  বিভিন্ন দেশের ব্যাংকগুলোতে এজেন্ট শাখা রয়েছে । প্রবাসীরা আমাদের রেমিটেন্স বৈধভাবে কয়েক মিনিটের মধ্যে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে পারে। বর্তমানে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের পাঠানো টাকা সরাসরি বিকাশ একাউন্টে জমা করা যায় ।

 এ বহুজাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে আইনগত ভাবে পরিচালিত হয়ে থাকে। আজকে আমরা এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদের জানাবো। কিভাবে আপনারা ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে রেমিটেন্স গ্রহণ করতে পারবেন। বাংলাদেশের অনেকেই প্রবাস জীবন কাটছে।

 তারা অনেক দিন থেকে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা দেশে পরিবারের কাছে পাঠিয়ে থাকেন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে যারা নতুন তাদের জন্য বলছি , বাংলাদেশ থেকে কয়েকভাবে আপনি টাকা গ্রহণ করতে পারবেন ।

বর্তমান সময়ে বিদেশ থেকে টাকা পাঠাতে বেশিদিন অপেক্ষা করতে হয় না । আপনি এক কর্মদিবসের মাধ্যমে বিভিন্ন মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করে রেমিটেন্স গ্রহণ করতে পারবেন।

যারা বিদেশ থেকে টাকা পাঠায় তাদেরকে বলা হয় রেমিটার , যে টাকাটা দেশে আসে,   সেটাকে বলা হয় রেমিটেন্স। আপনারা ডাচ-বাংলা ব্যাংক , ইসলামী ব্যাংক,  বিকাশ ব্যবহার করে বিদেশ থেকে টাকা উপার্জন করতে পারেন।

এজন্য আপনাকে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে । একাউন্টধারী প্রথমে টাকা উত্তোলন করার জন্য যেকোনো ডাচ-বাংলা ব্যাংক কর্তৃক মনোনীত আউটলেট পয়েন্টে যাবেন। একাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য যে কোন নগদ আউটলেট পয়েন্টে যাবেন।

এবং টাকা উত্তোলনের কথা বলবেন । তারপর কর্তৃপক্ষ আপনাকে একটি ফরম পূরণ করতে বলবেন,  পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা সেখানে জমা দিলে আপনার নগদ একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে। তাহলে বন্ধুরা এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদের বিস্তারিত তথ্য জানিয়ে দিলাম আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button