ইসলামিক

ফেরাউনের মায়ের, বাবার, বউয়ের, মেয়ের, দাসীর নাম কি (এখানে দেখুন)

আপনারা কি ফেরাউনের মায়ের নাম জানতে চাচ্ছেন? অথবা ফেরাউনের বউয়ের নাম কি ছিল তা জানতে চাচ্ছেন? যদি আপনারা এই সকল বিষয়ে জানতে চান তাহলে আমাদের এই পোস্টে আপনাদের জন্য।

কারণ আমরা আজকে আমাদের এই পোস্টটিতে আলোচনা করেছি মায়ের নাম কি ছিল এই বিষয়ে এবং ফেরাউনের বউ এর নাম কি ছিল এ বিষয়ে। এছাড়াও আমরা  আলোচনা করেছি ফেরাউন কি তরমুজের ব্যবসা করতো কিনা এ বিষয়ে।

আপনারা যদি আমাদের এই পোস্টটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে আপনারা উক্ত সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন। অনেকেই মনে করেন যে ফেরাউন হচ্ছে একজন ব্যক্তির নাম।

তবে ফেরাউন কোন ব্যক্তির নাম নয়। ফেরাউন হচ্ছে একটি উপাধি। বনি ইসরাইলের যুগে মিশরের রাজাদেরকে ফেরাউন নামে সম্বোধন করা হতো। মুসা (আঃ) এর জন্মের গ্রহণের সময় মিশরে ফেরাউন ছিলেন দ্বিতীয় রামছিস।

অনেকে আছেন যারা ফেরাউনের মায়ের নাম সম্পর্কে জানতে আগ্রহী থাকে। তাই ফেরাউনের মায়ের নাম জানার জন্য অনেকে অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ফেরাউনের মায়ের নাম অনুসন্ধান করে থাকে।

আবার অনেকে বিভিন্ন আলেমদের ওয়াজ শুনে থাকে। তাই আমরা এই পোস্টটিতে ফেরাউনের মায়ের নাম কি ছিল এ বিষয়ে আলোচনা করেছি। ফেরাউন যখন ছোট ছিল তখন তার বাবা-মা মারা যায়।

তখন সে মিশরের ফেরাউন ছিল না। তখন ফেরাউন ছিল খুবই গরিব। ফেরাউনের মায়ের সম্পর্কে হাদিসে তেমন একটা উল্লেখ নেয়। কিন্তু ফেরাউনের বউয়ের বিষয়ে বিভিন্ন হাদিসে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে।

আছিয়া ছিলেন আল্লাহর একজন প্রিয় বান্দী। এছাড়া আল্লাহ তাআলা  ফেরাউনের বউ আছিয়ার থেকে সকল নারীদেরকে শিক্ষা গ্রহণ করতে বলেছেন। তিনি হচ্ছেন জান্নাতের একজন নারী।

ইসলামে ফেরাউনকে নিয়ে যতটা তিরস্কার করা হয় তেমনি ফেরাউনের বউকে নিয়েও ইসলামের অনেক প্রশংসা করা হয়। অনেকে ফেরাউনের বউ এর নাম জানতে আগ্রহী থাকেন। তাই আমরা এই পোস্টে আলোচনা করেছি।

ফেরাউনের বউয়ের নাম ছিল আছিয়া। তিনি ছিলেন খুব ভালো একজন মহিলা। ফেরাউন যেমন শিরক ও কুফরে জর্জরিত ছিল। আল্লাহর তাওহীদে বিশ্বাস করত না। নিজেকে খোদা দাবি করত। তেমনি ফেরাউনের স্ত্রী হয়ে আছিয়া তাকে খোদা মানেনি।

সে আল্লাহর তাওহীদে বিশ্বাস করত। আল্লাহর এবাদত করত। সবার সাথে ভালো ব্যবহার করত এ।মনকি সে আল্লাহ তাওহীদে বিশ্বাস রাখতে গিয়ে ফেরাউনের হাতে মৃত্যুবরণ করে।

সে কখনো ফেরাউনকে খোদা বলে মেনে না নেয়ার জন্য ফেরাউন আছিয়ার উপর অনেক অত্যাচার করে। তার সন্তানদেরকে হত্যা করে। তবুও সে আল্লাহর থেকে সরে আসেনি। আল্লাহ তায়ালা প্রতিটি বন্দীদেরকে আছিয়ার জীবনী থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে বলেছেও

অনেকে আছেন যারা জানতে চান যে ফেরাউনের প্রথম ব্যবসা কি ছিল বা ফেরাউন তরমুজের ব্যবসা করতো কিনা। তাই আমরা আমাদের এই পোস্টে আলোচনা করব ফেরাউন তরমুজ এর এর ব্যবসা করতো কিনা এই বিষয়ে।

ফেরাউন যখন ছোট ছিল তখন তার বাবা মা মারা যায়। তখন থেকে সে সবার কাছ থেকে ধার দেনা ও সুদের উপর টাকা নিয়ে জীবন যাপন করে। কিন্তু  সকল ধার দেনা থেকে বাঁচার জন্য সে তার গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়

এবং তার বন্ধু হামানের সাথে দেখা হয়। তখন তারা দুজন মিলে একজন ব্যক্তিকে তরমুজের ক্ষেতে কাজ করতে দেখে। তখন তারা সিদ্ধান্ত নেয় যে তারা তরমুজের ব্যবসা করবে। এর জন্য তারা দুজনে মিলে ওই তরমুজ মালিকের কাছ

থেকে তরমুজ নিয়ে বাজারে বিক্রি করতো এবং টাকা মালিকের হাতে দিত এবং মালিক তখন তাদেরকে সেই তরমুজের টাকার অংশ থেকে কিছু অংশ তাদেরকে দিত। এভাবে ফেরাউন প্রথমে তরমুজের ব্যবসা করে।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button