রকমারি

রডের দাম ২০২২ (সেপ্টেম্বর, আগষ্ট) বিস্তারিত ক্লিক করে জানুন

আপনি চাইবেন কোন বাড়ি তৈরি করতে হলে ভালো মানের রড দিয়ে বাড়ি তৈরি করবেন। কিন্তু আপনি জানেন না বর্তমান সময়ে বিভিন্ন সিমেন্ট এর দাম কত টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

আপনাকে অবশ্যই বাজার যাচাই করে রড কিনতে হবে এবং বর্তমান দাম অনুযায়ী আপনার বাজেট নির্ধারণ করতে হবে। আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে রডের দাম কত টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। প্রতি কেজি রডের দাম কত? বাংলাদেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম ৫১ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি তো পেয়েছেই সাথে রড সিমেন্ট

অর্থাৎ নির্মাণ সামগ্রীর দামও অস্বাভাবিক হারে বেড়ে গেছে। আশাকরি সাথেই থাকে জানাবেন আমাদের। আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে তাদের সামনে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের রডের দাম কত টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। পাইকারি ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বিএসআরএম রড বিক্রি হচ্ছে 92300 টাকা। সেই সাথে একেএস রড প্রতি টন বিক্রি হচ্ছে কেন 92500 টাকায়।

তাই বলা যায়, ডলারের দাম যদি না কমে অথবা আমাদের দেশে যদি তেলের দাম না কমানো হয়। তাহলে রড সিমেন্টের দাম কমছে না। আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করবো।

আমি আগস্ট মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে রডের দাম কত টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে, তা জানাবো। সেই হিসেবে আগস্ট মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে দাম বেড়েছে 5 শতাংশ। আশা করি আপনাদের কাছে পড়ে ভালো লেগেছে।

আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো লোহার দাম কত টাকা বৃদ্ধি পেল। আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়লে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে যাবেন।

দিনে দিনে রডের দাম আরো বাড়বে। আন্তর্জাতিক বাজারে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এবং ডলারের মূল্য বৃদ্ধির কারণে রডের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে অস্বাভাবিক হারে। গত বছর থেকেই বেসামাল রডের বাজার।

আর গত এক মাসের ব্যবধানে বিভিন্ন মানের এমএস রডের দাম বেড়েছে টনপ্রতি প্রায় ৪ হাজার টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, চট্টগ্রাম থেকে রড আনতে খরচ বেড়ে যাওয়া এবং বাজারে রডের কাঁচামাল বিলেট ও স্ক্র্যাপের দাম বেড়ে যাওয়ার কারণেই পণ্যটির দাম বাড়ছে।

বিএসআরএম রড এর পরপরই বাজারের সবচাইতে ব্যবহার করা হয় আবুল খাইর স্টিল রড। মঙ্গলবার সরেজমিন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি দাম বেড়েছে। সাধারণ গ্রেডে এমএস রডের দাম।

এদিন বিভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রতি টন সাধারণ গ্রেডের ৪০০ ওয়াট এমএস রড বিক্রি হয়েছে ৫০ থেকে ৫২ হাজার টাকায়। এটা মূলত আগের দাম বর্তমান সময়ে রড বিক্রি করা হচ্ছে 92 হাজার টাকা প্রতি টন।

আশাকরি পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সঙ্গে বিস্তারিত তথ্য জানিয়ে দিতে পেরেছি। আর যদি কোনো তথ্য পেতে চান। আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে জানতে পারেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button