নামাজ

মহিলাদের তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম এবং নিয়ত [এখানে ক্লিক করে দেখুন]

আসসালামু আলাইকুম, আমরা আজকে আমাদের এই পোস্টে আলোচনা করব মহিলাদের তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম, তাহাজ্জুদ  নামাজ কত রাকাত ও তাহাজ্জুদ নামাজ কখন পড়তে হয়এই বিষয়ে।

আপনারা যারা তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম ও সময় জানতে চান তা আমাদের এই পোস্টের সাথে থাকুন। তাহলে আপনারা তাহাজ্জুদ নামাজ এর বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন। তাহাজ্জুদ নামাজ অন্য পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের মত ফরজ নামাজ নয়।

তাই এই নামাজ না পড়লেও কোন গুনাহ হয় না। প্রত্যেক মুসলমান ব্যক্তিকে পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ নামাজ আদায় করতে হয়। কেউ যদি ফরজ নামাজ আদায় না করে তাহলে সে জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না।

কেউ যদি তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করে তাহলে তার কোনো গুনাহ হয়না, কিন্তু অনেক সওয়াব হয়। তাহাজ্জুদ নামাজের ফজিলত ও অনেক বেশি। কারণ অন্যান্য সুন্নত ও নফল নামাজের মধ্যে তাহাজ্জুদ নামাজ অন্যতম।

তাহাজ্জুদ  নামাজ পুরুষ ও মহিলা সকলেই পড়তে পারে। আল্লাহ তায়ালা পুরুষ মহিলা সবাইকে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন। পুরুষ ও মহিলাদের মধ্যে তাহাজ্জুদ   নামাজের কোন পার্থক্য নেই।

অনেক মহিলারাই তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম জানে না। তাই আমরা আমাদের এই পোস্টে আলোচনা করব মহিলাদের তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে। মহিলাদেরকে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়তে হলে প্রথমে তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত করতে হবে।

এরপর তাকবীরে তাহরীমাহ্ বেধে ছানা পড়তে হবে। ছানা পড়ার পর সূরা ফাতিহার সাথে অন্য যেকোনো একটি সূরা মিলাতে হবে। এরপর রুকু দিয়ে সোজা হয়ে দাঁড়াতে হবে। এরপর বসে দুইবার সেজদাহ্ দিতে হবে।

এভাবে পুনরায় একইভাবে নামাজ পড়ে তাশাহুদ, দরুদ শরীফ, দোয়া মাসুরা পড়ে সালাম ফিরিয়ে দুই রাকাত নামাজ শেষ করতে হবে।তাহাজ্জুদ  নামাজের নির্দিষ্ট কোন রাকাত নেই। তাহাজ্জুদ নামাজ চার রাকাত, 8 রাকাত, 12 রাকাত পড়া যায়।

প্রত্যেক ব্যক্তি তার ইচ্ছে অনুযায়ী তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করতে পারবে। যে যত বেশি রাকাত নামাজ আদায় করে তার সওয়াব তত বেশি হয়। তাহাজ্জুদের নামাজ দুই রাকাত করে পড়তে হয়।

আমাদের মহানবী (সাঃ) বলেছেন,যে প্রত্যেক ব্যক্তি জীবনে একবার হলেও যেন তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করে। কারণ তাহাজ্জুদ নামাজের ফজিলত অনেক বেশি। আমাদের নবী করীম (সাঃ) প্রতি রাতে তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করতেন।

তাহাজ্জুদের নামাজ সম্পর্কে আমাদের ওয়েবসাইটে আরো কতগুলো পোস্ট প্রকাশ করা হয়েছে। আপনারা চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলো পড়ে তাহাজ্জুদ নামাজের বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিতে পারবেন।

তাহাজ্জুদ নামাজের সময় শুরু হয় রাত বারোটার পর থেকে ফজর নামাজের আগে পর্যন্ত। যে ব্যক্তি তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করে দোয়া করে আল্লাহ তার দোয়া কবুল করেন। মধ্যরাতে আল্লাহ তায়লা দুনিয়ার আসমানে চলে আসেন

এবং আল্লাহ তায়ালা বলেন, তোমরা আমার কাছে ক্ষমা চাও আমি তোমাদের ক্ষমা করে দেব। আমার কাছে দোয়া করো আমি তোমাদের দোয়া কবুল করব।

মহানবী (সাঃ) বলেছেন, যে পুরুষ লোক রাতে তার স্ত্রীকে ডেকে নামাজ আদায় করার কথা বলে এবং যে স্ত্রী তার স্বামীকে রাতের বেলা ঘুম থেকে ডেকে নামাজ আদায় করতে বলে তার উপর আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়।

Back to top button