ব্যবসার আইডিয়া

টাকা ছাড়া ব্যবসা আইডিয়া এবং ৭টি ঘরোয়া ব্যবসা

আপনি কি টাকা ছাড়া ব্যবসা করতে যাচ্ছেন? অথবা বিনা টাকায় ব্যবসা করতে চাচ্ছেন? তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। আমরা আজকে এই পোস্টে ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করব। তাই দেরি না করে পোস্টটি সম্পূর্ন মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

বাংলাদেশের অনেক মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে বসবাস করে। অনেকে শিক্ষিত হওয়া সত্ত্বেও অর্থের অভাবে ভালোভাবে ব্যবসা করতে পারে না। সে ক্ষেত্রে এই পোস্টটি আপনার জন্যই।

আমরা আজকে এই পোস্টে আলোচনা করব কিভাবে আপনি নাম মাত্র পুঁজিতে অথবা বিনা পুঁজিতে ব্যবসা করতে পারবেন। তাই দেরি না করে পোস্টটি সম্পূর্ন পড়ুন। আপনি চাইলে বেশ কিছু ব্যবসা পুঁজি ছাড়াই করতে পারবেন।

সেই ব্যবসাগুলো হচ্ছে অনলাইন ব্যবসা, ই-কমার্স ব্যবসা অথবা হকার ব্যবসা। এরকম ব্যবসাগুলো আপনি নামমাত্র পুঁজিতে করতে পারবেন। খুবই সামান্য পুঁজি নিয়ে এই ব্যবসাগুলো করা যায়।

আপনার যদি অর্থের অভাব থাকে সেক্ষেত্রে আপনি আপনার মেধাকে কাজে লাগিয়ে এবং আপনার শ্রমের মাধ্যমে সহজেই লাভবান হতে পারেন। তাই বসে না থেকে আপনার অবশ্যই কাজ করা উচিত।

আপনি চাইলে অনলাইনে বিভিন্ন ব্যবসা করতে পারবেন। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় আপনি চাইলে ফেসবুকে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেন। নামমাত্র মূল্যে বা পুঁজি নিয়ে আপনি এই ব্যবসা করতে পারবেন।

তাছাড়া আপনি যদি ইউটিউবে ভালো ভালো কনটেন্ট তৈরি করেন সেক্ষেত্রে আপনি সহজেই সেই ব্যবসাগুলো করতে পারবেন। আপনি যদি উচ্চশিক্ষিত হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে অনলাইনে বিভিন্ন শিক্ষনীয় ভিডিও

আপলোড করেও ব্যবসা করতে পারবেন অথবা আপনি চাইলে অনলাইনে বিভিন্ন  শিক্ষার্থীকে ভিডিও ক্লাসের মাধ্যমে পড়াশোনা করাতে পারবেন। আপনি নামমাত্র পুঁজিতে ব্যবসা করতে চাইলে হকারের ব্যবসা করতে পারেন

অথবা ভ্যানে নিয়ে বিভিন্ন ফল, শাকসবজি বিক্রি করতে পারেন। সেই সাথে ভ্যানে করে অল্প মূল্যের কাপড়গুলো বিভিন্ন এলাকাতে নিয়ে ঘুরে ঘুরে বিক্রি করতে পারেন। আপনি চাইলে ঘরে বসে বিভিন্ন ঘরোয়া ব্যবসা করতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আপনি বাড়িতে খাবার রান্না করে বিভিন্ন হোটেলে সরবরাহ করতে পারেন সেগুলো অথবা বিভিন্ন অফিসেও খাবার সংগ্রহ করতে পারেন। সেই সাথে আপনি চাইলে বাসায়

কেক বানিয়ে ফেসবুকে অ্যাডভার্টাইজিং করে সেই কেক বিক্রি করতে পারেন। তাছাড়া আপনি ঘরে বিভিন্ন সেলাই কাজের বা কুটির শিল্পের কাজগুলো করতে পারেন। এছাড়াও বুটিক্সের কাজগুলো ঘরে বসে করতে পারেন।

ঘরে বসে বিভিন্ন সময় কাঁথা সেলাই করার মাধ্যমেও ভালো অর্থ উপার্জন করা যায়। আপনি যদি আপনার এলাকাতে সেলাই মেশিনের দোকান দিয়ে থাকেন অর্থাৎ টেইলার্সের দোকান দিয়ে থাকেন

তাহলে এটি খুব সহজে করতে পারেন। সেলাইমেশিনের বা টেইলার্সের ব্যবসাটি খুবই লাভজনক একটি ব্যবসা। বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা যদি বলতে হয় তাহলে বলতে হবে কাপড়ের ব্যবসা।

আপনি কাপড়ের ব্যবসার মাধ্যমে অল্প কিছুদিনের মধ্যে ভালো লাভ করতে পারবেন। আপনি চাইলে জুতার ব্যবসা করতে পারেন। এক্ষেত্রেও অল্প পুজিতে অল্প দিনে ভালো লাভ করতে পারবেন।

তবে এ বিষয়গুলোর ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই দক্ষ হতে হবে। অন্যথায় আপনার লস হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। এরকম আরো বিস্তারিত বিভিন্ন  ব্যবসা সম্পর্কে  জানতে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলো দেখুন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button