স্বাস্থ্য

বাচ্চা নষ্ট করার পর কি কি সমস্যা হয় (ক্লিক করে দেখুন)

প্রত্যেকটি নারী মা হতে চায়। কিন্তু বর্তমানে নানা কারণে বাচ্চা নষ্ট করতে হয়। বাচ্চা নষ্ট করার পর নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। এ সমস্যাগুলো সমাধানের জন্য অবশ্যই সাবধান থাকতে হবে।

আজকের আর্টিকেলে মিসক্যারেজ হওয়ার পর কি কি সমস্যা হয় এবং এ সমস্যাগুলো দুর করতে আমাদের যা যা সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। আপনারা যদি আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন

তাহলে অনেক কিছু জানতে পারবেন। আমরা অনেক সময় অনেক কারণে বাচ্চা নষ্ট করে থাকি। এতে করে শারীরিক ও মানসিক দুই ভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দেশের অধিকাংশ মেয়েরা বাচ্চা নষ্ট করে।

বাচ্চা নষ্ট করার পর অনেক ধরনের সমস্যা হয়। বাচ্চা নষ্ট করার পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। যার ফলে রক্তের পরিমাণ কমতে থাকে। এছাড়াও মাঝেমাঝে কালো রক্তের শোপ পরতে দেখা যায়।

এগুলো শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। যেখান থেকে বাচ্চা নষ্ট হয় সেখানের ভ্রুনের বিভিন্ন অংশ থেকে রক্ত আকারে ভ্রুনো পরতে থাকে। শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যথা শুরু হয়। বিশেষ করে কোমরে অত্যন্ত ব্যথা হয়।

যার ফলে দৈনন্দিন কাজগুলো করা কঠিন হয়ে পড়ে। মেয়েদের শরীর সুস্থ থাকার অন্যতম একটি প্রক্রিয়া হল পিরিয়ড। বাচ্চা নষ্ট হলে পিরিয়ড সময় মত হয় না। দেখা যায় দেরিতে পিরিয়ড হয়। এর ফলে হরমোনের সমস্যা দেখা দেয়।

এতে করে অনেক ধরনের রোগ ধরা পড়ে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে রক্তস্বল্পতা দেখা দেয়। এর ফলে শরীর অনেক দুর্বল হয়ে পড়ে। বাচ্চা নষ্ট করার ফলে মনে এক ধরনের মানসিক অশান্তি বিরাজ করে।

কোন কাজে মন বসে না। খাওয়া-দাওয়ায় মন বসে না। এর ফলে শরীর আস্তে আস্তে দুর্বল হয়ে যায়। আশা করি আপনারা যারা যারা জানতেন না বাচ্চা নষ্ট হওয়ার পর কি কি সমস্যা হয় তারা আজকের আর্টিকেলটির মাধ্যমে জানতে সক্ষম হয়েছেন।

আজকের আর্টিকেলে গর্ভপাতের পর যে যে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। গর্ভপাত হওয়ার পর মেয়েরা মানসিক সমস্যায় ভুগে থাকে। এ সময় তাদের পরিবারের উচিত হবে তাদের পাশে থাকা।

যাতে করে তারা সাহস পায়। তারা যাতে ভেঙে না পড়ে। সব ধরনের মানসিক সাপোর্ট তাদেরকে দেওয়া উচিত। এছাড়াও গর্ভপাতের পর শরীর অনেক দুর্বল হয়ে পড়ে। এ সময় ফল, শাক-সবজি ইত্যাদি পুষ্টিকর খাবার বেশি বেশি খেতে হবে।

যাতে করে শরীর এর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় রসুন, তিল, দুধ, শুকনো ফল ইত্যাদি অবশ্যই রাখতে হবে। গর্ভপাতের পর অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে মেয়েরা যাতে ভারী কাজ না করে।

এ সময় পর্যাপ্ত ঘুমের প্রয়োজন। কমপক্ষে আট ঘণ্টা ঘুমাতে হবে। যাতে করে মস্তিষ্ক সতেজ থাকে। গর্ভপাতের পর আরেকটি সমস্যা দেখা যায় আর তা হল পানির স্বল্পতা। প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে।

গর্ভপাতের পর শরীর এর বিভিন্ন জায়গায় অনেক ব্যথা হয়। তাই প্রতিদিন শরীর মাসাজ করলে অনেকটা আরাম পাওয়া যায়। আশা করি আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনারা অনেক কিছু জানতে পেরেছেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button