নামাজ

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত আরবিতে বাংলা উচ্চারণ সহ এবং বাংলা নিয়ত দেখুন

আমরা আজকে আমাদের এই পোস্টে আলোচনা করব তাহাজ্জুদ নামাজ সম্পর্কে। আপনারা যদি তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত ও তাহাজ্জুদ নামাজের সময় এবং তাহাজ্জুদ  নামাজ কত রাকাত হয় এই বিষয়ে জানতে চান তাহলে এই পোস্টটি পড়ুন।

তাহাজ্জুদ নামাজ হচ্ছে আল্লাহর দেওয়া সুন্নত নামাজগুলোর মধ্যে একটি। দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ নামাজ ছাড়াও আল্লাহ তায়ালা প্রতিটি মুসলমানকে কিছু সুন্নত ও নফল নামাজ আদায় করার কথা বলেছেন।

সুন্নত ও নফল নামাজ গুলোর মধ্যে তাহাজ্জুদের গুরুত্ব অনেক বেশি। তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করলে অনেক সওয়াব পাওয়া যায়। মৃত্যুর পর যার যত বেশি আমল ও সওয়াব থাকে তার মিজানের পাল্লা তত বেশি ভারী হয়।

তাই আমাদের বেশি বেশি আল্লাহ তায়ালার ইবাদত করা উচিত। আল্লাহ তায়ালা প্রত্যেক মুসলমানের উপর পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করে দিয়েছেন। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজগুলো হচ্ছে ফজর, যোহর, আসর, মাগরিব ও এশা।

এই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ছাড়া অন্যান্য সুন্নত ও নফল নামাজ আদায় না করলেও গুনাহ্ হয়না। কিন্তু কেউ যদি দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ নামাজ আদায় না করে তাহলে মৃত্যুর পর সে কখনো জান্নাতে প্রবেশ করতে পারে না।

আজকে আমরা আমাদের এই পোস্টে আলোচনা করব তাহাজ্জুদ নামাজ কিভাবে আরবীতে নিয়ত করতে হয়। আপনারা যারা আরবিতে তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত করতে না পারেন তারা আমাদের এই পোস্টটি পড়লে আরবিতে

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত করা শিখতে পারবেন। নামাজের নিয়ত আরবি ও বাংলায় দুইভাবেই করা যায়। কেউ যদি আরবীতে তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত করতে চায় তাহলে তাকে নিয়তের জন্য দাঁড়িয়ে বলতে হবে,

“নাওয়াইতুয়ান উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’আলা রাক’আতাই সালাতিল তাহাজ্জুদ সুন্নাতু রাসূলিল্লাহি তা’আলা মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”

অনেকেই জানেনা যে তাহাজ্জুদের নামাজ কখন পড়তে হয় বা তাহাজ্জুদের নামাজের সময় কতক্ষণ থাকে। তাই আজকে আমরা এই পোস্টে আলোচনা করব তাহাজ্জুদ নামাজের সময় নিয়ে। আপনারা যারা তাহাজ্জুদ নামাজের সময় জানতে চান,

তারা আমাদের এই পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। তাহাজ্জুদের নামাজ হচ্ছে সুন্নত। তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করতে হয় মধ্যরাতে ফজর নামাজের আগে। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,

যে ব্যক্তি তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করে আল্লাহ তার দোয়া কবুল করেন। নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রতিরাতে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করতেন ও ক্ষমা চাইতেন।

কারণ প্রতি মধ্যরাতে আল্লাহ তায়ালা সপ্তম আসমান থেকে দুনিয়ার আসমানে অবতীর্ণ হন এবং দোয়াকারীর দোয়া কবুল করেন।তাহাজ্জুদের নামাজ 2 রাকাত,4 রাকাত, 8 রাকাত ও 12 রাকাত হয়ে থাকে।

এই রাকাত গুলোর মধ্যে  যার যত রাকাত ইচ্ছা হয় সে তত রাকাত তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করতে পারে। তাহাজ্জুদ নামাজ পড়তে হয় দুই রাকাত দুই রাকাত করে। নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম 8 রাকাত তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করতেন।

নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে পুরুষ লোক তার স্ত্রীকে রাতের ঘুম থেকে উঠে নামাজ আদায় করার কথা বলে এবং যে স্ত্রী তার স্বামীকে রাতে ঘুম থেকে উঠিয়ে নামাজ আদায় করতে বলে

তাদের উপর আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়। তাই আমাদের প্রত্যেক মুসলমানের উচিত প্রতি রাতে ঘুম থেকে উঠে তাহাজ্জুদের নামায পড়ে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়ার ও দোয়া করা।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button