টেকনোলজি

৫ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট [সংগ্রহ করার পদ্ধতি দেখুন]

আপনি কি পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন ? তাহলে আপনাদের জন্য আমাদের এই আর্টিকেল।  এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট তৈরি করতে হলে আপনাকে কি কি কাজ সম্পন্ন করতে হবে ।

সে প্রক্রিয়া আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব।  আপনি চাইলে পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট পেতে পারেন । তবে 18 বছরের নিচে এবং 65 বছরের উপরে সকল নাগরিকের জন্য 5 বছর মেয়াদী এবং 48 পৃষ্ঠার পাসপোর্ট দেওয়া হয়।

তাহলে বন্ধুরা আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট কিভাবে তৈরি করবেন । সে তথ্য জেনে নেওয়ার জন্য অনুরোধ রইল। 5 বছর মেয়াদী যে সাধারণ পাসপোর্ট পেতে লাগবে 4000 টাকা।

অর্থাৎ 48 পৃষ্ঠার পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট পেতে হলে আপনাকে 4025 টাকা খরচ করতে হবে।  এবং জরুরী ভিত্তিতে পাসপোর্ট পেতে হলে আপনাকে ছাড়া যা ৬৩২৫ টাকা এবং অতীব জরুরী পাসপোর্ট পেতে হলে 8625 টাকা প্রদান করতে হবে ।

এগুলোর মধ্যে 15% ভ্যাট যুক্ত আছে। এছাড়া আপনারা চাইলে 64 পৃষ্ঠার পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট পেতে পারেন।  এজন্য সাধারণ পাসপোর্টের জন্য 6325 টাকা জরুরি পাসপোর্টের জন্য 8625 টাকা এবং অতীব জরুরী পাসপোর্ট ফি 12075 টাকা।

নির্ধারণ করা হয়েছে। তাহলে বন্ধুরা এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদের জানিয়ে গেলাম । আশা করি বুঝতে পেরেছেন । আরও কোন তথ্য জানতে চাইলে আপনারা নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে চোখ রাখুন।

ই পাসপোর্ট তৈরি করার নিয়ম এবং খরচ সম্বন্ধে আপনারা অনেকেই জানতে চাচ্ছিলেন । এরই ধারাবাহিকতায় আমি আপনাদের সঙ্গে সকল তথ্য উপস্থাপন করার চেষ্টা করছি ।

আশাকরি আপনার আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়লে বুঝে নিতে পারবেন। আপনারা সাধারণ পাসপোর্ট পাবেন 21 দিনের মধ্যে , জরুরী পাসপোর্ট পাবেন 10 দিনের মধ্যে , অতি জরুরী পাসপোর্ট পাবেন 2 দিনের মধ্যে। বন্ধুরা,

এ আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদেরকে জানিয়ে দিলাম।  পাঁচ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট তৈরি করতে হলে আপনাকে কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। পাসপোর্ট সংক্রান্ত জরুরী এবং সব তথ্য জানতে হলে আপনাকে অবশ্যই ওয়েবসাইটে www.epassport.gov.bd/instructions/ ভিজিট করতে হবে ।

হ্যালো বন্ধুরা এই পাসপোর্ট কত দিনে পাওয়া যায় এ সম্পর্কে আপনাকে জানতে চাচ্ছি। এরই ধারাবাহিকতায় আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব।  আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়লে আশা করি আপনারা সকল ধরনের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

আপনারা নরমাল পাসপোর্ট পাবেন 21 দিনে,  এবং এক্সপ্রেস পাসপোর্ট পাবেন 10 দিনের মধ্যে এবং সুপার এক্সপ্রেস পাসপোর্ট পাবেন 2 দিনের মধ্যে। আপনারা চাইলে 48 পৃষ্ঠার

এবং 64 পৃষ্ঠার জন্য কি পাসপোর্ট এর আবেদন করতে পারবেন। সাধারণ পাসপোর্ট থেকে ই-পাসপোর্টের পার্থক্য হলো, এতে মোবাইল ফোনের সিমের মতো ছোট ও পাতলা আকারের চিপ থাকে।

 এতে ৩৮ ধরনের নিরাপত্তাবৈশিষ্ট্য থাকবে, যার অনেক বৈশিষ্ট্য থাকবে লুকানো অবস্থায়।ই-পাসপোর্টের জন্য অনলাইনে www.dip.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে গিয়ে আবেদন করা যাবে। তাহলে বন্ধুরা আশাকরি আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা বুঝতে পেরেছেন.

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button