স্বাস্থ্য

চুল পড়া বন্ধ করার উপায়, ঔষধ, শ্যাম্পু [মেয়েদের ও ছেলেদের] চুল পড়া বন্ধ করার তেলের নাম দেখুন

চুল মানুষের সৌন্দর্যের প্রতীক বিভিন্ন কারণে আমাদের চুল ঝরে যায়। চুলের যত্ন সম্পর্কে নারী-পুরুষ উভয়েরই জানা উচিত। অনেকেরই হয়তো চুলের যত্ন সম্পর্কে সঠিক ধারণা নেই। আজকে পোস্টে আমরা চুল পড়া বন্ধ করার উপায়,

চুল পড়া বন্ধ করার ঔষধ, চুল পড়া বন্ধ করার খাবার এসকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। বর্তমানে চুল পড়ার সমস্যা নারী ও পুরুষ উভয়ের মধ্যেই রয়েছে। মূলত প্রাকৃতিক পরিবর্তন, আবহাওয়া ও আধুনিকতা এসবের জন্য দায়ী,

তবে চুল পড়ার কিছু কিছু প্রাকৃতিক কারণ থাকলেও শারীরিক কিছু সমস্যা ও এর কারণ হতে পারে। চুল পড়া বন্ধ করার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি আছে যার মাধ্যমে সহজে চুল পড়া বন্ধ করা যেতে পারে।

চুল পরিচর্যা জন্য অন্যতম একটি গুরুত্ব উপাদান হল নারকেল তেল চুল দ্রুত বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। নারকেলের দুধ চুলে ভিটামিনের ঘাটতি পূরণ করে মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালনকে দ্রুত করে তোলে এবং চুলকে গভীর থেকে পুষ্টি যোগায়।

চুল পড়া রোধ করতে ও চুলের বৃদ্ধির জন্য মেথি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান, এটি সহজেই পাওয়া যায়। মেথিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি  আয়রন ও পটাশিয়াম যা চুল পড়া বন্ধ করে চুলের বৃদ্ধি ঘটায় ও অকালপক্কতা রোধ করে।

চুল পড়া রোধ করতে একটি কার্যকরী আয়ুর্বেদিক উপাদান হলো যষ্টিমধু। যষ্টিমধু চুলের নানা সমস্যার প্রতিরোধের ক্ষমতা গড়ে তুলতে সাহায্য করে যষ্টিমধুর মধ্যে থাকা অ্যামিনো এসিড

এবং অন্যান্য উপাদান মাথার ত্বককে আদ্র রাখে যা চুলকে শক্তিশালী করে তুলতে এবং চুলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। চুল পড়ার সমস্যা প্রতিরোধ এবং চুলের দ্রুত বৃদ্ধি ঘটানোর জন্য গ্রিনটি

ও বেশ কার্যকরী এতে প্রচুর পরিমাণে ফেনোল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে চুলকে ক্ষতিকারক ইউভি রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করে এবং চুলের ক্ষতি প্রতিরোধে সহায়তা করে।

চুলের জন্য ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের ভিটামিন গুলো খুব দরকার, এছাড়া ভিটামিন সি ও ডি ওবেশ উপকারী। অনেকের ধারণা ভিটামিন-ই চুলের জন্য দরকার কিন্তু চুলে ভিটামিন ই এর পরিমাণ খুবই কম।

এক কালীন সময়ে মানুষ খেত কম কিন্তু এখন খায় বেশি কিন্তু তাতে প্রোটিন নেই বললেই চলে। যার যার ফলে চুলে ভিটামিন ই এর যোগান দিতে ভিটামিন ওষুধ খাওয়া প্রয়োজন হয়।

চুল পড়ার চিকিৎসার জন্য এখন মাত্র দুটি ওষুধ প্রচরিত আছে একটি হচ্ছে মিনোক্সিডিল যা পুরুষ ও মহিলা সবাই ব্যবহার করতে পারেন।আর অন্যটি হচ্ছে ফিনাস্টেরাইড যা শুধু পুরুষদের জন্য,

তবে এ দুটো ওষুধের প্রতিটি কিছুনা কিছু পার্শপ্রতিক্রিয়া আছে এবং সবার ক্ষেত্রে এগুলো সমান কার্যকারী হয় না। পালংশাক, বাঁধাকপি ও ব্রোকলি ভিটামিন মিনারেল, খনিজ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের সবথেকে ভালো উৎস।

এই খাবারগুলো প্রতিদিন খেলে চুলের গোড়া মজবুত হয় এছাড়া চুল পড়া কমায়। ডিম প্রোটিন, ভিটামিন বি 12, আয়রন, জিংক এবং omega-6 ফ্যাট  এর উৎস এই ভিটামিন ও খনিজ গুলোর মধ্যে

যে কোন একটির অভাব হলে চুলের গুণগতমান খারাপ হতে পারে। তাই চুল পড়া রোধ করতে খাদ্য তালিকায় ডিম রাখতে হবে। গাজর ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ।  এটি স্ক্যাল্পে  পুষ্টি সরবরাহ করে। চুলের গোড়া শক্ত করে, তাই খাদ্য তালিকায় গাজর রাখতে হবে।

মিষ্টি আলু ভিটামিন-এ শোষণ করতে পারে। এছাড়া এগুলো বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ চুলের ঘনত্ব এবং সিরাম উৎপাদনের জন্য ভিটামিন এ অপরিহার্য। যা চুলকে  সুস্থ এবং প্রাকৃতিক ভাবে আদ্র রাখে। তাই ডায়েটে মিষ্টি আলু রাখতে হবে।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button