মোবাইল ব্যাংকিং

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে (স্টুডেন্ট, সেভিংস একাউন্ট চার্জ)

আপনি কি ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চাচ্ছেন? অথবা ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন? যদি যদি এই সকল বিষয়ে জানতে চান তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য।

কারণ আমরা আজকে এই পোস্টে এই সকল বিষয়ে আলোচনা করব। তাই দেরি না করে পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। বাংলাদেশে বর্তমানে বেশ কয়েকটি ব্যাংক রয়েছে। তার মধ্যে ডাচ বাংলা ব্যাংক একটি।

আপনারা যদি ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে চান তাহলে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে পারবেন। তবে আপনার অবগতির জন্য জানাচ্ছি ব্যাংকে একাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে কয়েক রকমের একাউন্ট রয়েছে।

সেভিংস একাউন্ট, স্টুডেন্ট একাউন্ট, কারেন্ট একাউন্ট। আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট ওপেন করেন তাহলে আপনার একাউন্ট থেকে কোনরকম চার্জ কাটা হবে না। শুধুমাত্র এটিএম কার্ডের চার্জ কাটা হবে।

আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্ট ওপেন করতে চান অথবা কারেন্ট একাউন্ট ওপেন করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে কত টাকা চার্জ কাটা হবে সে বিষয়টি জানতে পোস্টের বাকি অংশটুকু মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্ট ওপেন করতে চান তাহলে আপনার ক্ষেত্রে চার্জ কাটা হবে। এই চার্জটি বার্ষিক হিসেবে কাটা হয়। এক্ষেত্রে আপনার একাউন্টে যদি 10 হাজার টাকা বা তার কম পরিমাণে টাকা থাকে

তাহলে আপনার একাউন্ট থেকে কোন রকমের ফি কেটে নেওয়া হবে না। আপনার একাউন্টে যদি 10 হাজার টাকার বেশি এবং 25 হাজার টাকার কম টাকা থাকে তাহলে আপনার একাউন্ট থেকে মেইনটেনেন্স ফি হিসেবে 100 টাকা

এবং 15% ভ্যাট কেটে নেওয়া হবে। আপনার একাউন্টে যদি 25 হাজার টাকার বেশি থাকে এবং 2 লক্ষ টাকার কম থাকে তাহলে আপনার একাউন্ট থেকে 200 টাকা এবং 15% ভ্যাট কেটে নেওয়া হবে।

আপনার একাউন্টে যদি ২ লক্ষ টাকা বা তার বেশি পরিমাণে টাকা থাকে তাহলে আপনার এখন থেকে 250 টাকা এবং ১৫% ভ্যাট কেটে নেওয়া হবে। আপনার একাউন্টে যদি 10 লাখ টাকা বা তার বেশি পরিমাণে টাকা থাকে

তাহলে 300 টাকা এবং 15% ভ্যাট কেটে নেওয়া হবে। ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চাইলে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি, আপনার ছবি, যে বাড়িতে অবস্থান করছেন বা থাকছেন সেই বাড়ির কারেন্ট বিল,

পানির বিল এর ফটোকপি এবং আপনি যদি ছাত্র অথবা কর্মরত থাকেন তাহলে আপনার আইডি কার্ডের ফটোকপি। সেই সাথে আপনার নমিনীর ছবি এবং ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপির প্রয়োজন পড়বে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে

এছাড়াও একাউন্ট খোলার বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে ডাচ বাংলা ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করুন। তাদের কাস্টমার কেয়ারের নাম্বার হচ্ছে 16216।

আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট বন্ধ করতে চান তাহলে আপনার কোন কষ্টই করতে হবে না। শুধুমাত্র ডাচ বাংলা ব্যাংকের কাঙ্ক্ষিত শাখায় উপস্থিত হতে হবে এবং সেখানে তাদের জানাতে হবে বিষয়টি।

পরবর্তীতে শাখা থেকে আপনাকে একটি ফরম বা আবেদন ফরম দেওয়া হবে। সেই ফরমটি আপনাকে যথাযথভাবে পূরণ করতে হবে। এই ফরমটি পূরণ করে আপনি কাউন্টারে জমা দিলে

অথবা শাখায় জমা দিলে তারা মুহূর্তের মধ্যে আপনার একাউন্টটি বন্ধ করে দিবে। এক্ষেত্রে আপনার একাউন্টে অর্থ থাকলে সে অর্থ অন্য কোন একাউন্টে ট্রান্সফার করে দিবে অথবা আপনাকে নগদ উত্তোলন করে দিবে।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button