মোবাইল ব্যাংকিং

বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২ [ক্লিক করে দেখে নিন]

মাঝে মাঝে জরুরী প্রয়োজনে এবং ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে বিকাশ আমরা ব্যবহার করে থাকি । বর্তমান সময়ে সবার ফোনে বিকাশ রয়েছে এবং কোন মানুষের ক্ষেত্রে বিকাশ ব্যবহার করছে । তাই মানুষ বিভিন্ন ধরনের অফারের জন্য বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট করতে চায় ।

আপনি চাইলে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিকাশের এজেন্ট একাউন্ট খুলে নিতে পারেন । যাকে মার্চেন্ট একাউন্টে বলা হয়। তাই আপনি যদি বিকাশ এজেন্ট হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন। এবং বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খুলতে চান । তাহলে যে সমস্ত ডকুমেন্ট এবং অন্যান্য বিষয়াদি প্রয়োজন হবে ।

সেগুলো সম্পর্কে আজকে আমরা এ আর্টিকেল । এর মাধ্যমে জানাবো । আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন । কিভাবে আপনি একটি এজেন্ট একাউন্ট খুলবেন সে তথ্য জেনে নিন।

বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

আজকে আমরা আর্টিকেল এর মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং তথ্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব । আশাকরি আপনাদের কাছে খুবই ভালো লাগবে। বিকাশ একাউন্টের এজেন্ট একাউন্ট খুলতে হলে

আপনাকে অবশ্যই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স এর প্রয়োজন হবে। জাতীয় পরিচয় পত্রের সর্বনিম্ন চার কপি ফটোকপি,  যে ব্যক্তি এজেন্ট হতে চান তার একটি সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি,

একটি পোস্টপেইড সিম এবং e-tin সার্টিফিকেট লাগবে। e-tin সার্টিফিকেট হচ্ছে ইলেকট্রনিক টেক্স ফেয়ার আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার। নিম্নোক্ত কাগজপত্র থাকলে আপনারা এজেন্ট ব্যাংক বিকাশের এজেন্ট হতে পারবেন।

বিকাশ এজেন্ট থেকে টাকা পাঠানোর নিয়ম

প্রথমবার এক লক্ষ টাকা লোড করে নিতে হবে অর্থাৎ বিকাশ একাউন্টে প্রথমবার 1 লক্ষ টাকা রিচার্জ করতে হবে। প্রতিমাসে একাউন্টের মাধ্যমে ন্যূনতম পাঁচটি অ্যাকাউন্ট খুলে দিতে হবে ।  আপনি যে এজেন্ট একাউন্ট রয়েছে।

এজেন্ট একাউন্ট এর ব্যালেন্স সবসময় 7000 টাকা থাকতে হবে।  সাত হাজার টাকার নিচে ব্যালেন্স কামাতে পারবেন না । প্রতিদিন অন্তত দুই হাজার টাকা ট্রানজেকশন থাকতে হবে।

এ পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করলে আপনারা এজেন্ট হতে পারবেন। আপনার অনেকে জানতে চাচ্ছিলেন কিভাবে বিকাশ এজেন্ট থেকে টাকা পাঠানো যায় সে তথ্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব। টাকা পাঠানোর অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে বিকাশ অ্যাপ।

বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে

ব্যবহার করা বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে আপনারা খুব কম সময়ের মধ্যে এবং নির্ভুল ভাবে টাকা পাঠাতে পারেন। তবে ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে আপনার টাকা পাঠাতে পারবেন । *247# ডায়াল করে বিকাশে টাকা পাঠানোর নিয়ম ।

বিকাশের ইউএসএসডি কোড *247# ডায়াল করে খুব সহজেই টাকা এক একাউন্ট থেকে অন্য একাউন্টে পাঠানো যায়। তার জন্য নিচের স্টেপ অনুসরণ করুন। ১ নম্বর অপশন থেকে সেন্ড মানি  সিলেক্ট করুন।

যেই একাউন্টে টাকা পাঠাবেন সেই বিকাশ নম্বরটি লিখুন। আপনি যদি বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে টাকা পাঠাতে চান । তাহলে অবশ্যই নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করুন এবং আমরা এই স্ক্রিনশট এর মাধ্যমে আপনার দেখিয়েছি ।

বিকাশ এজেন্ট লাভ

এভাবে আপনারা বিকাশ এজেন্ট থেকে অন্য একাউন্টে টাকা পাঠাবেন। অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর তুলনায় বিকাশ একাউন্টে ক্যাশ আউট চার্জ তুলনামূলক বেশি ।

আপনারা ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে হাজার ১৯  টাকা 50 পয়সা প্রতি 1000 টাকা ক্যাশ আউট করতে পারবেন। যদি মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করেন তাহলে 18 টাকা 50 পয়সা

এবং যেকোন একটি প্রিয় নাম্বারে ক্যাশ আউট এর সর্বনিম্ন 14 টাকা 50 পয়সা। তবে ক্ষেত্রে যে কোন পাঁচটি নাম্বার প্রিয় করে নিলে আপনারা সেই সব নাম্বার গুলোতে বিনা চার্জ সেন্ড মানি করতে পারবেন ।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button