উৎসব

পহেলা বৈশাখ রচনা প্রতিযোগিতা ২০২২ এবং ১০০, ৫০০, ১০০০ শব্দের রচনা [ডাউনলোড করুন]

শুভ নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকে আমরা এই আর্টিকেলটি শুরু করতে যাচ্ছি। এর মাধ্যমে পহেলা বৈশাখ এর বিভিন্ন ধরনের রচনা সামগ্রী এবং পহেলা বৈশাখের এসএমএস কালেকশন নিয়ে হাজির হয়েছি।

আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সবকিছু দেখে নিতে পারেন। সুতরাং কথা না বাড়িয়ে চলুন এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। বৈশাখ মাসের প্রথম দিনটি বাংলাদেশের মানুষের কাছে বাংলা নববর্ষ হিসেবে পরিচিত।

পুরোনো বছরের সমস্ত ক্লান্তি মুছে জীর্ণ ক্লান্ত অবসাদের অবসান ঘটিয়ে আত্মপ্রকাশ করে বাংলা নববর্ষ। তাই পহেলা বৈশাখ সবার কাছে জনপ্রিয়। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায় প্রতিদিন মানুষ ক্ষুদ্র দিন একাকী, কিন্তু উৎসবের দিনে মানুষ বৃহৎ।

পহেলা বৈশাখ ছবি ২০২২

পহেলা বৈশাখের ইতিহাস

বাংলা নববর্ষ বর্তমানে বাংলাদেশের প্রধান জাতীয় এবং সার্বজনীন উৎসব। বাংলাদেশে বসবাসকারী সকল ধর্মের মানুষের মিলন উৎসব। এ ছাড়া বাইরের দেশগুলোতে অবস্থানরত প্রবাসী ভাই ও বোনেরা নববর্ষকে উপলক্ষ করে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

পহেলা বৈশাখের রচনা সামগ্রী পেতে চান? আসুন আমাদের ওয়েবসাইটে। বাংলাদেশে বসবাসকারী সকল ধর্মের মানুষের মিলনের উৎসবের নাম হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। বাংলা সনের প্রথম মাস বৈশাখ।

এই বৈশাখ মাসের প্রথম দিন যাপিত হয় বলে বাংলা নববর্ষের অপর নাম পহেলা বৈশাখ। শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা বিশ্বের বাঙালিরা এই দিনে নতুন বছরকে বরণ করে নেয়, ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করে অতীত বছরের সকল দুঃখ-গ্লানি।

পহেলা বৈশাখের শাড়ির ছবি

পহেলা বৈশাখ রচনা

সবার কামনা থাকে যেন নতুন বছরটি সুখময় ও সমৃদ্ধ হয়। ধারণা করা হয় যে সম্রাট আকবর পহেলা বৈশাখের রীতি নীতি চালু করেন।আপনারা পহেলা বৈশাখ কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের ইতিহাস জানতে চান।

তাহলে আসুন আমাদের ওয়েবসাইটে। অধিকাংশ ঐতিহাসিক ও পণ্ডিত মনে করেন মুঘল সম্রাট আকবর চান্দ্র হিজরি সনের সঙ্গে ভারতবর্ষের সৌর সনের সমন্বয় করে ১৫৫৬ সাল বা ৯৯২ হিজরিতে বাংলা সন চালু করেন।

পহেলা বৈশাখে মেয়েদের ছবি

পহেলা বৈশাখ ও বাঙালির সংস্কৃতি

বাংলা সন চালু হওয়ার পর নববর্ষ উদযাপনে নানা আনুষ্ঠানিকতা যুক্ত হয়। নবাব এবং জমিদারের খাজনা আদায়ের উদ্দেশ্যে চালু করেন ‘পুণ্যাহ’। জমিদারি না থাকায় এখন তা লুপ্ত।

এদিনে গ্রাহকরা দোকানের বাকীর টাকা মিটিয়ে দিলেন তবে বর্তমানে বাংলা নববর্ষের সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হলো বৈশাখী মেলা। এছাড়া ঢাকার রমনার বটমূলে বসে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বৈশাখী মেলা।

যেহেতু পহেলা বৈশাখ আমাদের দেশের সংস্কৃতির একটি অংশ। তাই পহেলা বৈশাখের ইতিহাস সবারই জানা প্রয়োজন।আজকে আমরা এ পোস্টের মাধ্যমে পহেলা বৈশাখের বিভিন্ন ধরনের ইতিহাস আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

পহেলা বৈশাখের হাতে আঁকা ছবি ২০২২

পহেলা বৈশাখ অনুচ্ছেদ

মঙ্গল শােভাযাত্রার মাধ্যমে এর আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। পুরাে এলাকাজুড়ে বহুবিধ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পালিত হয়। অন্যদিকে, গ্রামাঞ্চলে যে মেলা হয় তাতে বিশেষভাবে স্থান পায় কবিগান, কীর্তন, যাত্রা,

গম্ভীরা গান, পুতুল নাচ, নাগরদোলা সহ নানা আনন্দ আয়োজন। বাংলাদেশে বসবাসকারী আদিবাসীরাও তাদের নিজস্ব পদ্ধতিতে বর্ষবরণ করে। তাদের এই উৎসবকে বলে ‘বৈসাবি’।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা, মিজোরাম, আসাম অঙ্গরাজ্য পহেলা বৈশাখে খুব ঘটা করে পালন করা হয়। তাহলে বন্ধুরা, কেমন লাগলো আজকের আর্টিকেল। কমেন্ট করে জানাবেন। আরও কোন তথ্য পেতে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটে জানাবেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button