সিম অফার

গ্রামীণফোন ফ্লেক্সিলোড করার নিয়ম ২০২২ এবং ফ্লেক্সিলোড কমিশন (দেখুন)

আপনারা যারা গ্রামীণফোন ব্যবহার করেন এবং গ্রামীন সিম ব্যবহার করেন। তারা অবশ্যই জানতে চান কিভাবে গ্রামীন সিমে রিচার্জ করা যায়। আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে সকল তথ্য জানাবো।

আপনারা যারা গ্রামীণফোন রিচার্জ করার কথা ভাবছেন। তাদের জন্য আমাদের এই পোস্ট। এ পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে বিস্তারিত জানাবো। গ্রামীণফোন রিচার্জ করতে হলে আপনারা বেশ কয়েকটি উপায় রিচার্জ করতে পারেন।

নিকটস্থ ফ্লেক্সিলোডের দোকান থেকে রিচার্জ করা যেতে পারে। অথবা আপনার ফোনে যদি কোন ইন্টারনেট মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস চালু করা থাকে। সেখান থেকেও আপনারা রিচার্জ করতে পারেন।

আজকের আর্টিকেলটি পড়ুন। এই পোষ্টের মাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। সুতরাং, আসুন মূল আলোচনায় ফিরি। আপনারা প্রিপেইড নম্বরে যে কোন পরিমাণ টাকা রিচার্জ করার জন্য কাছের

কোন গ্রামীণফোন অনুমোদিত স্ক্র্যাচ কার্ড বিক্রেতা ফ্লেক্সিলোডের দোকানে চলে যান। ফ্লেক্সিলোড করার জন্য 10 টাকা থেকে 5000 টাকা পর্যন্ত যে কোন পরিমাণ বিক্রেতাকে দিন।

সে সাথে সাথেই বিক্রেতা নিজের ফোন থেকে আপনার নাম্বারটা রিচার্জ করে দিবে। এভাবে আপনারা গ্রামীণফোন থেকে রিচার্জ করে নিতে পারেন। তবে বর্তমান সময়ে সর্বনিম্ন 20 টাকা রিচার্জ করতে হবে।

20 টাকা রিচার্জ করলে আপনি এক মাসের / 30 দিন মেয়াদ পাবেন। আপনারা যদি ব্র্যাক ব্যাংকের বিকাশ ব্যবহার করে থাকেন। সেখান থেকে আপনারা ঘরে বসেই রিচার্জ করতে পারেন।

আশা করি পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে বিস্তারিত ধারণা দিতে পেরেছি। আজকে আমার এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো মোবাইলে কিভাবে টাকা রিচার্জ করতে হয়।

আপনারা চাইলে মাই জিপি অ্যাপ অথবা মাই বাংলালিংক অ্যাপ এর মাধ্যমে রিচার্জ করতে পারেন। এছাড়া যারা এয়ারটেল এবং রবি সিম ব্যবহার করেন। তারা অ্যাপের মাধ্যমে রিচার্জ করতে পারেন।

তবে বর্তমান সময়ে বিকাশ নগদ, উপায় এবং শিওর ক্যাশের মাধ্যমে রিচার্জ করা যায়। আজকে আমার এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো, কিভাবে আপনারা বিকাশ থেকে মোবাইল রিচার্জ করবেন।

আপনারা বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে মোবাইল রিচার্জ করতে পারেন অথবা নির্দিষ্ট কোড ডায়াল করে রিচার্জ করতে পারেন। যদি কোড ডায়াল করে বিকাশ থেকে রিচার্জ করতে চান।

তাহলে আপনাকে এই কোড ডায়াল করতে হবে। তারপর মোবাইল রিচার্জ অপশন সিলেক্ট করতে হবে। মোবাইল রিচার্জ অপশন সিলেক্ট করার পর আপনার মোবাইলে রিচার্জ করতে চান সেই অপারেটর সিলেট করতে হবে।

এর পরবর্তী নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার অ্যামাউন্ট লিখে পিন নাম্বার দিলে আপনার একাউন্টে টাকা রিচার্জ হয়ে যাবে। আপনার অনেকে জানতে চান পাওয়ার লোড কি এবং পাওয়ার লোড কিভাবে করতে হয়।

আজকে আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো। আপনারা চাইলে ঘরে বসেই নিজের ফোনে পাওয়ার লোড করে নিতে পারেন। যেটা একদম সিম্পল। পাওয়ার লোড করতে চাইলে আপনারা নিকটস্থ কোনো ফ্লেক্সিলোড পয়েন্ট এর কাছে যান।

তাদের কাছে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিলে তারা আপনার একাউন্টে টাকা ফ্লেক্সিলোড করে দিবে। মাঝে মাঝে রিচার্জে বেশ কিছু অফার পাওয়া যায়। সেগুলো জেনে রিচার্জ করে নিতে পারেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button