রকমারি

জমির দলিল উঠানোর নিয়ম ও চেনার উপায় [এখানে দেখুন]

আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে জমির দলিল উঠানোর নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করব। যদি মূল দলিল থাকে, রেজিস্ট্রি অফিসে গিয়ে দলিল রেজিস্ট্রি কার্যক্রম শেষ হলে মূল দলিল এর শেষ পৃষ্ঠার

উল্টোদিকে দলিলটি কত সালের, কত নম্বর বালাম বইয়ের কত পৃষ্ঠা থেকে কত পৃষ্ঠায় নকল করা হয়েছে। তা লিখে সাব-রেজিস্ট্রার করতে স্বাক্ষর করা হয়। এটা থেকে সহজে রেজিস্ট্রি অফিসের থেকে অনলাইনে দলিলের নকল উঠানো যায়।

এছাড়া আপনারা চাইলে অনলাইনে জমির দলিল যাচাই করতে পারেন এবং নকলের জন্য আবেদন করতে পারবেন। সুতরাং কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক।

আশা করি পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে পরিপূর্ণ ধারণা দিতে পারব। পর্চা খতিয়ান ম্যাপ এর মত ভূমি সম্পর্কিত বিভিন্ন দলিলাদি সেবাগ্রহীতাদের বাসায় পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভূমি মন্ত্রণালয় এবং ডাক বিভাগের মধ্যে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ স্বাক্ষরিত সমঝোতার মাধ্যমে জমির দলিল অনলাইনে তোলা যাবে।

বিভিন্ন প্রয়োজনে বাংলাদেশের নাগরিকরা ভূমি সংক্রান্ত সব আবেদন ও তার ভিত্তিতে ডকুমেন্ট এবং ম্যাপ সংগ্রহ করে থাকেন। এতদিন পর্যন্ত সেবাগ্রহীতাকে ভূমি অফিসে একাধিকবার যেতে হতো।

ডিজিটাল ভূমি সেবার আওতায় সেবাগ্রহীতাদের জন্য অনলাইন তথা ওয়েব, অ‌্যাপ বা কল সেন্টারের মাধ্যমে আবেদন করার সুযোগ সৃষ্টি করা হলেও প্রাপ্য পর্চা, খতিয়ান বা ম্যাপ সংগ্রহের জন্য ভূমি অফিসে যাওয়ার কোনো বিকল্প ছিল না।

এখন এসব সংগ্রহের জন্য আর ভূমি অফিসে যেতে হবে না। এখন আপনারা অনেকেই জানতে চান অনলাইনে কিভাবে দলিল তল্লাশি অথবা খুঁজে যায়। আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে

এই সংক্রান্ত তথ্য বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন এবং অনলাইনে জমির দলিল তল্লাশি করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানুন।

রেজিস্ট্রেশন আইন 1908 এর ধারা মোতাবেক প্রয়োজনীয় ফিস পূর্বে পরিশোধ সাপেক্ষে যেকোনো ব্যক্তি এক নং এবং 2 নং রেজিস্টার এবং 1 নং রেজিস্টার বহি সম্পর্কিত সূচি প্রদর্শন করতে পারে।

62 ধারার বিধান বলি সাপেক্ষে লিপিবদ্ধ বিষয়ে সকল নকল সার্টিফাইড কপি গ্রহণ করতে পারে। আপনারা অনলাইনে 10 এবং দলিলের নকল প্রাপ্তির নিয়মাবলী সম্পর্কে জানতে চাইলে নিকটস্থ রেজিস্ট্রি অফিসে যোগাযোগ করুন।

এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে অনলাইনে জমির দলিল বের করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আলোচনা করব। এজন্য আপনাকে একটি ওয়েবসাইটে যেতে হবে। তারপর খতিয়ান নাম্বার সিলেক্ট করে থাকলে।

খতিয়ান নাম্বার বক্সে লিখতে হবে। দাগ নাম্বার সিলেক্ট করে থাকলে, দাগ নম্বর বক্সে লিখুন। মালিকের নাম সিলেক্ট করে থাকলে মালিকের নাম বক্সে লিখুন। মালিকের পিতা বা স্বামীর নাম সিলেক্ট করে থাকলে পিতা বা স্বামীর নাম বক্সে লিখুন।

তারপর এ সার্চে ক্লিক ক্লিক করুন। তারপর আপনার সামনে অনলাইনে জমির দলিল পিডিএফ ফাইল আকারে উপস্থাপন করা হবে।  আশা করি এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা বুঝতে পেরেছেন।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button