উৎসব

আশুরা কবে ২০২২ (ক্লিক করে দেখুন) আশুরা কত তারিখে ২০২২

চলতি বছরে আরবি বছরের প্রথম মাসের নাম হচ্ছে মহরম। মহরম মাসে পবিত্র আশুরা পালিত হয় আসলে রয়েছে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত। মানবজাতির আদি পিতা হজরত আদমকে (আ.) প্রতিনিধি হিসাবে সৃষ্টি,

জান্নাতে অবস্থান, পৃথিবীতে প্রেরণ ও তওবা কবুল সবই আশুরার তারিখে সংঘটিত হয় হজরত নূহ (আ.) সাড়ে ৯০০ বছর তাওহিদের দাওয়াত দেওয়ার পরও যখন পথভ্রষ্ট জাতি আল্লাহর বিধান মানতে অস্বীকৃতি জানায়

তখন তাদের প্রতি নেমে আসে আল্লাহর গজব মহাপ্লাবন। চলন বন্ধুরা এ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেই। আশাকরি আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ে আপনার অজানা প্রশ্নের উত্তর জেনে নিবেন।

সুতরাং বন্ধুরা, কথা না বাড়িয়ে চলুন মূল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক। আশা করি আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর এই পোষ্টের মাধ্যমে জানানোর চেষ্টা করছি। হিজরি সনের প্রথম মাস মহররম। ‘মহররম’ শব্দের অর্থ সম্মানিত।

এ সম্পর্কে পবিত্র কালামে এরশাদ হয়েছে, ‘ইন্না ইদ্দাতাশ শুহুরি ইন্দাল্লাহি না আশরা সাহারা, ওয়া মিনহুম আরবাতুন হুরুম। অর্থাৎ আকাশ ও পৃথিবী সৃষ্টির দিন থেকেই আল্লাহর নিকট মাসের সংখ্যা বারো,

এর মধ্যে চারটি মাস সম্মানিত। যারা বিশেষভাবে এই মাসগুলোতে ইবাদত-বন্দেগী করবে। আল্লাহ তা’আলা তাদের বাকি 8 মাসের ইবাদত করার তৌফিক দান করবেন এবং যারা এই চার মাস নিজেকে গুনাহ থেকে বাঁচিয়ে রাখবে।

তাদের জন্য বাকি 8 মাস যাবতীয় পাপ কাজ থেকে বেঁচে থাকার সহজ হবে। হাদীস শরীফে চান্দ্রবর্ষের বারো মাসের মধ্যে মহরম কে আল্লাহর বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

এই পবিত্র কোরআনে উল্লেখিত সূরা তাওবার 36 নম্বর আয়াতে এই সম্পর্কে বলা হয়েছে। এই সম্মানিত মর্যাদাপূর্ণ মাসগুলোতে সম্পর্কে ফজিলত পূর্ণ মাস হচ্ছে হচ্ছে জিলকদ জিলহজ মহররম এবং রজব।

মহররম মাসের ১০ তারিখকে আশুরা বলা হয়। এই দিনটি সারা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। এই দিনের বিশেষ তাৎপর্য হলো, এই দিনেই পৃথিবীর বহু ঐতিহাসিক ও অলৌকিক ঘটনা সংঘটিত হয়েছে।

আমাদের দেশে মহররমের চাঁদ দেখার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় বিভিন্ন রূসম। এর মূলে রয়েছে আশুরা। মহররমের দশ তারিখকে আশুরা বলে। আশুরা আরবি শব্দ, যা আরবি ‘আশারা’ বা আশার’ শব্দ থেকে নির্গত হয়েছে।

‘আশারা’ বা আশার’ অর্থ হচ্ছে দশ। মুসলমানদের বিভিন্ন রূসম রেওয়াজ জারির কারণ হচ্ছে, এই দিনে হজরত হুসাইন রা কে কারবালার ময়দানে শহীদ করা হয়। অতএব শুধু আশুরার দিন নয়

বরং পুরো মহররম মাসকে শোকের মাস হিসেবে পালন করতে হবে এটাই আমাদের সমাজে অলিখিত নিয়ম। আনন্দ-ফূর্তি প্রকাশ পায় এমন কোনো কাজ করা যাবে না।

আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে পবিত্র আশুরা এবং সেগুলোর তাৎপর্যপূর্ণ বিশ্লেষণ আপনাদের সামনে তুলে ধরব। বাংলাদেশ আশুরা শুরু হতে যাচ্ছে রবিবার। 7 আগস্ট থেকে 8 আগস্ট পর্যন্ত।

শৈশবে আশুরার ছুটি নির্ধারণ করা হয়েছে মঙ্গলবার। 9 আগস্ট আশুরার তার নির্ধারিত করা হয় পবিত্র চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল হয়ে। তাহলে বন্ধুরা, এই পোষ্টের মাধ্যমে

আমি আপনাদের সামনে পবিত্র আশুরার বিস্তারিত তথ্য এবং সেগুলোর ফজিলত আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি। আরও যদি কোনো তথ্য পেতে চান। ওয়েবসাইট ভিজিট করে জানান।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button