ব্যবসার আইডিয়া

অল্প পুজিতে ঔষধের ব্যবসা আইডিয়া (ঔষধের পাইকারী ব্যবসা)

আপনি যদি অল্প পুজিতে ওষধের ব্যবসা করতে চান তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্যই। আমরা আজকে এই পোস্টে আলোচনা করব কিভাবে অল্প পুজিতে ঔষধের ব্যবসা করে বেশি লাভবান হওয়া যায় সে বিষয়ে।

তাই দেরি না করে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। বাংলাদেশে অনেক মানুষ উচ্চ শিক্ষিত থেকেও বেকার হয়ে যায়। কেননা বাংলাদেশে কর্মসংস্থানের পরিমাণ তুলনামূলক কম। তাই শিক্ষিতদের উচিত ঔষধ ব্যবসায় জড়িত হওয়া।

আপনি যদি ঔষধের ব্যবসা করতে চান তাহলে খুব সহজে করতে পারবেন। আপনি ইন্টার পাশ হয়ে থাকলে ফার্মেসির উপর কোর্স করে খুব সহজে ফার্মেসিতে বসে ঔষধের ব্যবসা করতে পারবেন।

আপনি যদি আপনার এলাকাতে অথবা আপনার এলাকার পার্শ্ববর্তী বাজারে একটি ফার্মেসীর দোকান দেন সেক্ষেত্রে ফার্মেসী ব্যবসা করে অল্প দিনে বেশ লাভবান হতে পারবেন।

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে ফার্মেসী সম্পর্কে জ্ঞান না রেখে কোনোভাবে ব্যবসা দেওয়া যাবে না। এজন্য আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স এবং ফার্মেসীর সম্বন্ধীয় ডিগ্রী অর্জন করতে হবে।

আপনি যদি অল্প পুজিতে ফার্মেসী ব্যবসা দিতে চান সেক্ষেত্রে ফার্মেসীর উপর একটি কোর্স করে নেন। সেই কোর্স করে আপনি আপনার এলাকা থেকে দোকান ভাড়া নিয়ে সেখানে বিভিন্ন কোম্পানির ওষধ নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

আপনার যদি পুঁজি কিছুটা বেশি হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনি পার্শ্ববর্তী কোন হসপিটালের পাশে একটি ফার্মেসী ভাড়া নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে।

কেননা হাসপাতালের আশেপাশের ফার্মেসীগুলো খুব বেশি পরিমাণে চলে। তাই আপনার পুঁজির পরিমাণ বেশি হলে আপনি এই কাজটি করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে আপনার এলাকাতে দোকান

দিয়ে ব্যবসায় অভিজ্ঞতা অর্জন করে পরবর্তীতে হাসপাতালে আশেপাশের দোকান দিয়েও আপনার ফার্মেসীর ব্যবসা বড় করতে পারেন। আপনি যদি ফার্মেসীর ব্যবসা করতে চান অর্থাৎ ফার্মেসী সম্বন্ধীয় কাজ করতে চান?

সেক্ষেত্রে আপনি কোর্স না করেও ফার্মেসী সম্বন্ধে কাজ করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে কোন একটি ঔষধ কোম্পানিতে জয়েন করতে হবে। এই ওষধ কোম্পানির ঔষধ গুলো আপনাকে বিভিন্ন ডাক্তারের

কাছে প্রমোশনাল অফিসার হিসেবে প্রচার প্রচারণা চালাতে হবে। এটি মূলত একটি চাকরি। আপনি আপনার কর্মদক্ষতার উপর ভিত্তি করে এই চাকরিতে বেতন কমবেশি পাবেন।

আপনি যদি ওষুধের পাইকারি ব্যবসা করতে চান সেই ক্ষেত্রে আপনি আপনার এলাকাতে একটি ডিলারের দোকান দিতে পারেন। আপনি বিভিন্ন কোম্পানির ঔষধগুলো আপনার দোকানে পাইকারি হিসেবে

অনেকগুলো পরিমাণ এনে রেখে আপনার এলাকাতে অন্য সকল ফার্মেসীগুলোতে সেগুলো সাপ্লাই করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির ডিলার হিসেবে নিয়োগ দিতে হবে

অর্থাৎ বলা যায় ওষধের পাইকারী ব্যবসা করতে গেলে বিভিন্ন কোম্পানির সরাসরি প্রতিনিধি হতে হবে। আপনি যদি বিভিন্ন রকম উৎপাদনমুখীর ব্যবসায় জড়িত হতে চান সেটাও সম্ভব।

উৎপাদনমুখী ব্যবসা বলতে আপনি কেকের ব্যবসা, বিস্কুট উৎপাদনের ব্যবসা অথবা চানাচুর, রুটি ইত্যাদি উৎপাদন ব্যবসার সাথে জড়িত হতে পারেন। ব্যবসা সম্বন্ধীয়

এরকম আরও বিভিন্ন তথ্য জানতে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলো দেখুন। আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলোতে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

Bangla Master

Bangla Master ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদেরকে স্বাগতম। এই ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা বিষয়ক তথ্য আপনি জানতে পারবেন। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে নিয়মিত দেয়া হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাকরি বিষয়ক তথ্যগুলো আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করেছি।
Back to top button